ঢাকামঙ্গলবার , ২৪ মে ২০২২
  1. অপরাধ,দূর্নীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. কৃষি সংবাদ
  4. ক্যাম্পাস
  5. খেলাধুলা
  6. গ্রামবাংলা
  7. জাতীয়
  8. ধর্ম,সাহিত্য
  9. ফিচার
  10. ফেসবুক কর্নার
  11. বিনোদন
  12. মুক্তমত
  13. রকমারি
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইউটিউব দেখে তরমুজ চাষ স্বাবলম্বী একরামুল

অনলাইন ডেস্ক
মে ২৪, ২০২২ ২:০৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

শফিকুল ইসলাম সোহাগ,খানসামা দিনাজপুর প্রতিনিধি –

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় তাইওয়ানের গোল্ডন ক্রাউন ও ব্ল্যাক বেবি তরমুজের চাষাবাদ করে স্বাবলম্বী কৃষক একরামুল ।উপজেলায় প্রথম তাইওয়ানের গোল্ডন ক্রাউন ও ব্ল্যাক বেবি তরমুজ চাষাবাদের বাম্পার ফলনের কারণে সকল কৃষকদের দৃষ্টি আকর্ষণ সক্ষম হয়েছেন একরামুল। কি জাতের তরমুজ গুলোর রং  তাইওয়ানের গোল্ডন ক্রাউন ওপরে হলুদ কিন্তু ভেতরে লাল। তাইওয়ানের ব্ল্যাক বেবি তরমুজের উপরের রং কালো হলেও  ভেতরে লাল বলে জানা য়ায়। 

এ বিষয়ে স্বাবলম্বী কৃষক একরামুল বলেন আমি ইউটিউব দেখে পরীক্ষামূলকভাবে এ তরমুজের চাষাবাদ শুরু করি, এবং কাঙ্ক্ষিত সফলতা অর্জনে সক্ষম হয়েছি।  আমার  তরমুজ প্রতি কেজি ৮০ টাকা দরে বাজারে বিক্রি হচ্ছে।  এসকল তরমুজের প্রতিটি ওজন প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ গ্রাম। প্রতিদিন ভোক্তারা তরমুজ কিনতে আমার তরমুজ ক্ষেত দেখতে হাসেন বিভিন্ন এলাকার মানুষজন । একরামুল বলেন,  আমার ছেলে ইউটিউবে ভিডিও দেখে সে কথা আমাকে জানালে আমি এ তরমুজ চাষে আগ্রহী হই। তরমুজ এর চাষাবাদ আমাকে আম স্বাবলম্বী করে তুলেছে। 

একরামুল বলেন, ইয়ে তরমুজ চাষ আবাদের জন্য বীজ সংগ্রহ করে মাচা তৈরি ব্যবস্থাপনা ও ফুল থেকে তরমুজের আকার বের হওয়ার পর জাল ব্যাগ দিয়ে বেঁধে দিতে হবে।  তিন মাসের মধ্যে এ ফসল আসতে শুরু করে। প্রতি শতাংশে এক হাজার টাকা চাষাবাদ খরচ হলেও তরমুজ চাষে দ্বিগুণ লাভ পাওয়া যাবে। তরমুজ কিনতে আসা ক্রেতা সুমন বলেন, সবার কাছেই তরমুজের স্বাদের কথা শুনেছি। তাই নিজে এবার ক্রয় করতে এসেছি।

আবুল হোসেন বলেন, উঁচু জমির মাটি ধূসর ও লাল বর্ণের। সাধারণত লিচু ও কাঁঠালের ফলন এখানে ভাল হয়। ভিন্ন জাতের তরমুজের আশানুরূপ ফলন হবে এমনটি অবিশ্বাস্য ছিল। কৃষক একরামুল হক তা বিশ্বাসযোগ্য করে দেখিয়েছেন। আমরাও উৎসাহিত হয়েছি। তার কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে পরবর্তী বছর আমরাও তরমুজের চাষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এ তরমুজটি গোল্ডেন আমাদের দেশে নতুন। স্বাভাবিক মৌসুমে উৎপাদনের পাশাপাশি অফ সিজনেও এটি চাষাবাদ করা যায়। তখন এর দাম বেশি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে, নতুন ভ্যারাইটির কারণে। যারা বাণিজ্যিক ভিত্তিতে এটি চাষ করতে চান তাদের জন্য কৃষি বিভাগ সকল ধরণের সহায়তা করবে।

এই সাইটে প্রতিনিধির পাঠানো নিজস্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।